বাড়ি চট্টগ্রাম অধ্যক্ষ মুকতাদের আজাদ খানের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষনা

অধ্যক্ষ মুকতাদের আজাদ খানের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষনা

328

আসছে ৩০ ডিসেম্বর ২০১৮ অনুষ্ঠিতব্য একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম-৩ সন্দ্বীপ সংসদীয় আসনে প্রতিদ্বন্ধিতার জন্য গত ২০ নভেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার এনপিপি’র মনোনয়ন অর্জন করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রনেতা ও ন্যাশনাল পিপলস্ পার্টি- এনপিপি’র কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মুকতাদের আজাদ খান। তিনি সিডিউল অনুযায়ী গত ২৭ নভেম্বর, মঙ্গলবার চট্টগ্রামের রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবরে তাঁর মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। আজ ১ ডিসেম্বর ২০১৮, রবিবার বেলা ১টায় যাছাই বাছাই শেষে অধ্যক্ষ মুকতাদের আজাদ খানের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষনা করেন চট্টগ্রামের রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন। উল্লেখ্য, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে সম্মানসহ স্নাতকোত্তর ডিগ্রীধারী মুকতাদের আজাদ খান স্কুল জীবন থেকেই রাজনীতির সাথে যুক্ত। পড়ালেখা শেষে তিনি সন্দ্বীপে একটি কলেজে অধ্যাপনার পাশাপাশি সৃজনশীলকর্মে প্রত্যক্ষভাবে যুক্ত হন। সন্দ্বীপে শিক্ষার গুণগত মানোন্নয়নে তাঁর উদ্যোগে ২০১৩ খ্রিষ্টাব্দ থেকে চলমান সাপ্তাহিক আলোকিত সন্দ্বীপে মেধাবৃত্তি প্রতিযোগিতা ৫ম শ্রেণি, ২০১৪ খ্রিষ্টাব্দ থেকে চলমান সাপ্তাহিক আলোকিত সন্দ্বীপ চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা ৪র্থ শ্রেণি ও ২০১৫ খ্রিস্টাব্দ থেকে চলমান সাপ্তাহিক আলোকিত সন্দ্বীপ হাতের লেখা প্রতিযোগিতা ৩য় শ্রেণি। ২০১৭ খ্রিষ্টাব্দে সংঘটিত গুপ্তচরা ঘাট ট্রাজেডিতে একমাত্র তিনিই চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন করে নিহতদের জনপ্রতি ১ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করেছিলেন। প্রসঙ্গত, গুপ্তচরা ঘাট ট্রাজেডিতে লাল বোর্ড উল্টে ১৮ (আঠার) জনের প্রাণহাণি ঘটেছিল। দেশ বিদেশে বহু আলোচিত সন্দ্বীপ সীমানা রক্ষা আন্দোলন এনাম নাহার হাই স্কুল মোড় থেকে ২০১৬ খ্রিস্টাব্দে মানববন্ধনের মাধ্যমে তিনিই সূচনা করেছিলেন। পরবর্তীতে উক্ত আন্দোলনে অনেকেই সম্পৃক্ত হন। তাঁর বড় ভাই লায়ন আলহাজ অ্যাডভোকেট সলিমুল্লাহ‘র উদ্যোগে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় তাদের পিতার নামে ১৯৯১ খ্রিস্টাব্দে মুছাপুর ইউনিয়নে প্রতিষ্ঠিত হয় হাজী আবদুল বাতেন সওদাগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। পরিবারের এই কাজে মুকতাদের আজাদ খান ছিলেন নিবেদিত প্রাণ।প্রসঙ্গত: বিদ্যালয়টি ২০১৮ খিস্টাব্দেও ফলাফল বিবেচনায় শ্রেষ্ঠ বিদ্যালয় হিসেবে সন্দ্বীপ উপজেলা শিক্ষা অফিস কর্তৃক পুরস্কৃত হয়। গণমানুষের আপনজন ও সৃজনশীল উদ্যোক্তা অধ্যক্ষ মুকতাদের আজাদ খান বলেন, তিনি বিজয়ের ব্যাপারে আশাবাদী। তিনি আরো বলেন- নির্বাচিত হলে সামাজিক বন্ধন দৃঢ়করণ, উৎপাদনমুখী অঞ্চল হিসেবে গড়ে তোলা, কৃষি ভিত্তিক সমবায় সমিতি চালু, পিপলস্ কমিউনিটি গঠন ও প্রত্যন্ত অঞ্চলে বিদ্যালয় কলেজ মাদরাসায় পরিবেশগত উন্নয়নে মনযোগ দিবেন।